Breaking News

ছবি দেখিয়ে মুস্তাফিজকে ১টি পরামর্শ দিলেন হার্শা ভোগলে

রবিচন্দ্রন অশ্বিনের কল্যাণে শুধু আইপিএল নয়, বরং গোটা ক্রিকেট–বিশ্বেই ‘মানকাডিং’ শব্দটা এখন বেশ পরিচিত। ওই যে বোলার বল ছাড়ার আগেই অনেক সময় ক্রিজ থেকে বেরিয়ে যান নন-স্ট্রাইকিং প্রান্তে থাকা ব্যাটসম্যান।

তখন তাঁকে বোলার আউট করে দিলে সেটাই ‘মানকাডিং’। এভাবে আউট করে এর আগেও অনেকের চক্ষুশূল হয়েছেন অশ্বিন। ক্রিকেটীয় চেতনাকে পাত্তা দেন না—এমন অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে। বিশ্বের যেকোনো প্রান্তেই মানকাডিংয়ের ঘটনা ঘটলেই ক্রিকেটীয় চেতনা নিয়ে তর্ক–বিতর্ক চলে।

আর সেখানে মানকাডিংয়ের পক্ষে কথা বলে লড়তে থাকেন অশ্বিন। মানকাডিংয়ের পক্ষে লড়াইয়ের ক্ষেত্রে এবার হার্শা ভোগলেকেও সঙ্গী হিসেবে পেলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের এই অফ স্পিনার।

রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে বাংলাদেশের বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজ একপর্যায়ে একটা নো বল করেন। রিপ্লেতে যখন সেই নো-বলের যৌক্তিকতা যাচাই করে দেখা হচ্ছিল, তখন দেখা গেল, নন-স্ট্রাইক প্রান্তে থাকা চেন্নাই সুপার কিংসের ব্যাটসম্যান ডোয়াইন ব্রাভো বোলিং ক্রিজ ছেড়ে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছেন। মোস্তাফিজ অত-শত খেয়াল করেননি, করলে হয়তো ব্রাভোকে ‘মানকাডিং’ করে আউট করতে পারতেন।

এই ছবিটি দেখেই মোস্তাফিজসহ বিশ্বের অন্যান্য বোলারদের ম্যানকাড আউট করার পক্ষেই রায় দেন হার্শা ভোগলে। স্পিরিট অব ক্রিকেটের দোহাই দিয়ে ম্যানকাড আউটকে যারা দোষের চোখে দেখেন, তাদের রীতিমতো ধুয়ে দিয়েছেন হার্শা।

মোস্তাফিজের সেই ডেলিভারির ছবি টিভি পর্দায় দেখানোর পর ধারাভাষ্য কক্ষে বসে হার্শা বলেন, ‘দেখুন ব্রাভো কতটা বাইরে এখন। তাই আমি বলি যে, নিয়মের মধ্যে যা কিছু আছে, সেগুলোর পুরোটা সুযোগ নেয়ার কথা টিম মিটিংয়েও বলা উচিত। এক্ষেত্রে স্পিরিট অব দ্য গেমের কথা আনা নির্বোধ মানুষের কাজ।’

Check Also

ভারতীয়দের হটিয়ে আইসিসির পুরস্কার জিতলেন বাবর আজম

একের পর এক দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে সবাইকে তাক লাগিয়ে শীর্ষে এখন পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *